মায়াবতী কিনলে ছাগল ফ্রী

প্রকাশিত: ১:২৪ পূর্বাহ্ণ, জুলাই ১৮, ২০২০

মায়াবতী কিনলে ছাগল ফ্রী

সাইফুল্লাহ হাসান: ‘মায়াবতী’ তার নাম। মৌলভীবাজারের সদর উপজেলার মনুরমুখ ইউনিয়নের দক্ষিণ বাহুরবাগ গ্রামের কামাল মিয়ার ছোট ভাই শখ করেই ষাঁড়টির নাম রেখেছে ‘মায়াবতী’। শখের এই গরুটি আসন্ন কোরবানির ঈদে বিক্রি করে দিবেন। তাই বেশ দামাদামিও হচ্ছে।

 

মৌলভীবাজারে এবার কোরবানির হাট বসবে না। সে কারনেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকের মাধ্যমে বিক্রি করতে চাচ্ছেন মায়াবতীর মালিক কামাল মিয়া৷ তিনি বলেন, গরুটি বিক্রির জন্য ফেসবুকে ব্যাপক প্রচারণা করছেন। বেশ কয়েকটি পাবলিক গ্রুপে পোস্ট করেছেন। অনেক দুর দূরান্ত থেকে ফোন আসছে তার কাছে গরুটি কেনার জন্য।

 

কামাল মিয়া জানান, তিনি তার মায়াবতীর দাম হেঁকেছেন দুই হাজার কম দুই লাখ টাকা। এই বছর তার আরও চারটি ষাঁড় রয়েছে।

 

কামাল মিয়া আরও জানান, তিনি গত ১০ বছর থেকে এই গরু লালনপালন করে আসছেন। ষাঁড়টি সম্পূর্ণ দেশীয় গ্রামীণ পদ্ধতিতে মোটাতাজা করা হয়েছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিজ্ঞাপন দেওয়ার পর অনেক সাড়া পাচ্ছি। অনেক ফোন দিচ্ছে এবং দামদর করছে। অনেক জায়গা থেকে লোকজন আসছে গরু দেখতে। সর্বশেষ কুলাউড়া থেকে একজনে ১ লক্ষ ৪০ হাজার টাকা দাম করেছেন।

 

তিনি বলেন, আমার এই গরুটি ৬ থেকে ৭ মন হবে। প্রতি বছর কোরবানি ঈদে ৬ থেকে ৬ লক্ষ টকার গরু বিক্রি করি। শখ থেকেই গরু পালন করি। আমার এখানে ৪ জন লোক নিয়মিত কাজ করে। মায়াবতী নামটি শখ করি রেখেছে আমার ছোট ভাই। আমাদের এই মায়াবতী যিনি কিনবেন সাথে একটি ছাগল ফ্রি পাবেন।

 

কামাল মিয়া বলেন, প্রতিটি গরুকে আমরা দেশীয় খাবার যেমন- ছোলার ভূষি, মসুরির ভূষি, ভুট্টার গুঁড়া, গমের গুঁড়া, গমের ভূষি, কাঁচা ঘাস ও খড় খাওয়ানো হয়।