টিফিনের বাঁচানো টাকায় গাছের চারা বিতরণ

প্রকাশিত: ৩:১৬ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২৯, ২০২০

টিফিনের বাঁচানো টাকায় গাছের চারা বিতরণ

অনলাইন ডেস্ক: স্কুল-কলেজ পর্যায়ের শিক্ষার্থীরা সংগঠনটির সদস্য। তাঁদের টিফিনের বাঁচানো টাকায় সংগঠনের কার্যক্রম চলে। ‘লাল সবুজ উন্নয়ন সংঘ’ নামের স্বেচ্ছাসেবী এ সংগঠনের উদ্যোগে গতকাল সোমবার কুলাউড়া ও জুড়ী উপজেলায় বিভিন্ন প্রজাতির ৩৫০টি গাছের চারা বিতরণ করা হয়। সারা দেশে সংগঠনটি এক লাখ গাছের চারা বিতরণ করবে। এরই মধ্যে ৩৭টি জেলায় বিতরণ করা হয়েছে।

 

স্থানীয় ও প্রত্যক্ষদর্শী ব্যক্তিদের সূত্রে জানা গেছে, বেলা ১১টার দিকে কুলাউড়া উপজেলা পরিষদ চত্বরে কাঁঠালগাছের চারা রোপণ করে এ কর্মসূচির উদ্বোধন করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) এ টি এম ফরহাদ চৌধুরী। এরপর সংগঠনের সদস্যরা চারা নিয়ে বিভিন্ন এলাকায় গিয়ে শিক্ষার্থী ও পথচারীদের মধ্যে বিতরণ করেন।

 

বিজ্ঞাপন

 

বেলা দেড়টার দিকে জুড়ীতে চারা বিতরণের মাধ্যমে এ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন ইউএনও আল ইমরান রুহুল ইসলাম। পরে সংগঠনের সদস্যরা উপজেলা সদরের বিভিন্ন এলাকায় শিক্ষার্থী ও পথচারীদের মধ্যে কাঁঠাল, অর্জুন, নিম, আমলকী, পেয়ারাসহ বিভিন্ন প্রজাতির গাছের চারা বিতরণ করেন।

 

সংগঠনের কেন্দ্রীয় সভাপতি কাওসার আলম বলেন, দেশের বিভিন্ন স্থানে তাঁদের সংগঠনের শাখা কমিটি রয়েছে। সংগঠনের সব সদস্য স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থী। তাঁদের টিফিনের টাকা বাঁচিয়ে সংগঠনের কার্যক্রম চলে। গত ৫ জুলাই থেকে তাঁদের এ কর্মসূচি শুরু হয়েছে। ইতিমধ্যে দেশের ৩৭টি জেলায় ৭৪ হাজার ৪০০টি গাছের চারা বিতরণ করা হয়ে গেছে। দেশের ৬৪টি জেলায় মোট এক লাখ চারা বিতরণ করা হবে।

কাওসার আলম বলেন, গাছের চারা বিতরণের পাশাপাশি মাদক, ইভ টিজিং, বাল্যবিবাহ ও জঙ্গিবাদ প্রতিরোধে তাঁরা দেশের বিভিন্ন এলাকার শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে সচেতনতামূলক কর্মসূচি পালন করেন। তবে করোনাভাইরাসের সংক্রমণের কারণে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় তাঁদের এ কার্যক্রম বন্ধ রয়েছে।

 

চারা বিতরণের উদ্বোধন শেষে ইউএনও আল ইমরান রুহুল ইসলাম গণমাধ্যমকর্মীদের বলেন, ‘এটা পজিটিভ বাংলাদেশের উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত। দেশে যখন মাদক, সন্ত্রাস, ধর্ষণের ছড়াছড়ি, তখন একদল তরুণের এ রকম উদ্যোগ আমাদের আশা জাগায়। টিফিনের টাকা বাঁচিয়ে এ রকম কাজ অন্য তরুণদের উদ্বুদ্ধ করবে। তারুণ্যের শক্তিই আগামীর বাংলাদেশ।’ তিনি আরও বলেন, জাপানি ভাষায় কাইজেন নামের একটি শব্দ আছে। এর অর্থ হচ্ছে, ছোট ছোট উন্নয়ন। ছোট ছোট কাজের মাধ্যমেই বড় পরিবর্তনের সূচনা হয়।

 

জুড়ীনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম/বিপি/কেপি